জান্নাতি দশ মহিলা View larger

জান্নাতি দশ মহিলা

Tk.120 tax excl.

Availability: in stock

New product

সমগ্র মানবজাতির ইতিহাস থেকে নারী জাতির অবদানকে গৌণ করে দেখার অবকাশ নেই। একজন মানুষের জন্ম থেকে আমৃত্যু পুরো সময়টাতেই নারী অস্তিত্ব অনস্বীকার্য। সে নারী কখনো বোন, মা, কখনো স্ত্রী কখনো বা মেয়ের ভূমিকায় আগমন করে। নারী-পুরুষের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় গড়ে ওঠে একটি আদর্শ পরিবার, পরিবার থেকে সমাজ, সমাজ থেকে রাষ্ট্র। নারীকে বাদ দিয়ে শুধু পুরুষ, অপরদিকে পুরুষকে বাদ দিয়ে শুধু নারীকে দিয়ে কোনো জাতির সামগ্রিক উন্নতির আশা করাটা অমূলক। নারী-পুরুষ একে অপরের পরিপূরক। ইসলাম পূর্ব-যুগে নারী ছিল চরম অবহেলিত, নির্যাতিত, নিপীড়িত, উপেক্ষিত, লাঞ্ছিত ও বঞ্চিত। নারী তার প্রাপ্য অধিকার থেকে বঞ্চিত ছিল। নারী শুধু পুরুষের কামনা এবং লালসার শিকার ছিল। ভোগ্য পণ্য হিসেবে তাদের ক্রয়-বিক্রয় করা হত। ইসলাম নারীকে সকল অত্যাচার-নির্যাতন থেকে মুক্ত করে তাকে তার যথাযথ সম্মান-মর্যাদা দান করেছে। তার সমস্ত অধিকারকে ফিরিয়ে দিয়েছে। যার ফলে একজন নারী সমস্ত পাপ কঙ্কিলতার আঁধার থেকে মুক্ত করে ইসলামের সুশীতল ছায়ায় আশ্রয় গ্রহণ করে নিজের অবস্থানকে সুসংহত করে আল্লাহ তাআলার শ্রেষ্ঠ সৃষ্টি হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার সৌভাগ্য অর্জন করে। কিন্তু বর্তমানে নারী তার নিজের সম্মান মর্যাদা ভুলে গিয়ে নগ্নতা, অশ্লীলতা, বেপর্দা নির্জলতার স্রোতে গা ভাসিয়ে কলঙ্কিত করেছে তার গৌরবময় ইতিহাসকে। ‘জান্নাতি দশ মহিলা’ বইটিতে এমন দশজন মহিয়সী নারীর জীবনালেখ্য উপস্থাপন করা হয়েছে, যাদের আমল-আখলাক দীনদারী, তাকওয়া ও পরহেজগারি এককথায় তাদের পুরো জীবন নারীজাতির জন্য আদর্শ হয়ে আছে। বক্ষমান বইটি নারী জাতিকে তাদের আদর্শ এবং সঠিক পথে পরিচালিত করবে বলে আশা রাখি!

Write a review

জান্নাতি দশ মহিলা

জান্নাতি দশ মহিলা

Write a review

Related Products